Top banner
Language : Bengali | English
Quick Links
 




Venue: অডিট ভবন, কাকরাইল, ঢাকা
Date: 11-05-2011



বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান,
বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের মান্যবর রাষ্ট্রদ-ত ঐ. ঊ. ঔধসবং ঋ. গড়ৎরধৎঃু,
কানাডার মান্যবর হাই-কমিশনার ঐ. ঊ. জড়নবৎঃ গপউড়ঁমধষষ,
জাতীয় সংসদে সরকারি হিসাব সমঙর্কিত স'ায়ী কমিটির সম্মানিত সভাপতি ড: মহিউদ্দিন খান আলমগীর, এমপি
বাংলাদেশের সম্মানিত মহা হিসাব-নিরীক্ষক জনাব আহমেদ আতাউল হাকিম,
অডিট বিভাগের পদস' কর্মকর্তাগণ
এবং
উপসি'ত সুধীমণ্ডলী
আস্‌সালামু আলাইকুম।
বাংলাদেশের মহা হিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক-এর কার্যালয় প্রতিষ্ঠার ৩৮তম বার্ষিকী উদ্‌যাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আপনাদের মাঝে উপসি'ত থাকতে পেরে আমি আনন্দ বোধ করছি। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ‘অডিট দিবস’ হিসেবে পালনের সিদ্ধান@ এ আয়োজনকে আরো অর্থবহ করেছে বলে আমি মনে করি। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আমি অডিট বিভাগের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীকে আন@রিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই। আমি মনে করি এ আয়োজন অডিট বিভাগের সকল স@রে কাজের গতিশীলতা সৃষ্টিতে উলে-খযোগ্য ভূমিকা রাখবে। আমি এ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর সফলতা কামনা করি।

সুধীমণ্ডলী,
    আমার জেনে অত্যন@ ভাল লাগছে যে, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের প্রজাতন্ত্রের হিসাবে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে ১৯৭৩ সালের ১১ই মে কমঙট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেলের কার্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। একই সাথে বাংলাদেশের সংবিধানে সি এন্ড এজি’র নিয়োগ, কাজের স্বাধীনতা ও দায়িত্বাবলির বিবরণ সম্বলিত পৃথক অধ্যায় অন@র্ভুক্ত করেন। এটি ছিল সরকারি অর্থ ব্যয়ে স্বচ্ছতা প্রতিষ্ঠার লক্ষে বঙ্গবন্ধুর দ-রদৃষ্টির বহি:প্রকাশ। কারণ তিনি জানতেন প্রজাতন্ত্রের হিসাবের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা ছাড়া সুশাসন অর্জন সম্ভব নয়। ১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। আমার পরম সৌভাগ্য আমি তখন দলের সাধারণ সমঙাদক। দলের একজন একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে আমার অপার সুযোগ হয়েছিল বঙ্গবন্ধুকে অত্যন@ কাছে থেকে দেখার। সুযোগ হয়েছিল তাঁর সাহসী ও বিচক্ষণ নেতৃত্ব এবং সুগভীর দেশপ্রেম থেকে শেখার। বঙ্গবন্ধুর দ-রদর্শী চিন@া-চেতনা এবং জনগণকে অকৃত্রিম ভালবাসার শিক্ষা আজো আমাকে গভীরভাবে অনুপ্রাণিত করে। আমি আজ পরম শ্রদ্ধায় বিনম্র চিত্তে জাতির জনককে স্মরণ করি, তাঁর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাই। তাঁর প্রদর্শিত পথ ও আদর্শ বাঙালি জাতিকে চিরদিন অনুপ্রেরণা যোগাবে।
সম্মানিত সুধীমণ্ডলী,
আপনারা জানেন, কমঙট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেল তথা মহা হিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের পদটি সাংবিধানিক। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের অষ্টমভাগে ১২৭ থেকে ১৩২ অনুচ্ছেদে মহা হিসাব-নিরীক্ষক পদের প্রতিষ্ঠা, দায়িত্ব, কার্যাবলী ইত্যাদি সন্নিবেশিত হয়েছে। মহা হিসাব-নিরীক্ষক প্রজাতন্ত্রের সরকারি হিসাবের নিরীক্ষা সহ তাঁর কর্তব্য কাজের প্রয়োজনে প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিযুক্ত যে কোন ব্যক্তির অধিভূক্ত সকল নথি, বহি, রসিদ, নগদ অর্থ, স্ট্যামঙ, ভাণ্ডার বা অন্য প্রকার সরকারি সমঙত্তি পরীক্ষার অধিকারী। প্রজাতন্ত্রের সরকারি হিসাবের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে তাই মহা হিসাব-নিরীক্ষকের দায়িত্ব ও ভূমিকা অত্যন@ গুরুত্বপ-র্ণ।

সাংবিধানিক ধারায় মহা হিসাব-নিরীক্ষক প্রজাতন্ত্রের হিসাব সমঙর্কিত রিপোর্টসম-হ আমার নিকট পেশ করে থাকেন। রিপোর্ট পেশের ধারাবাহিকতায় তিনি বিগত বছরে আমার নিকট ১৪টি বার্ষিক অডিট রিপোর্ট এবং ৪টি বিশেষ অডিট রিপোর্ট উপস'াপন করেছেন। আমার বিশ্বাস এসব রিপোর্টসম-হ রাষ্ট্রের হিসাব ব্যবস'াপনায় জবাবদিহিতা ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপ-র্ণ ভূমিকা পালন করছে।

প্রিয় সুধী,

    বর্তমান সরকার জনগণের ভাগ্যের উন্নয়ন তথা ক্ষুধা, দারিদ্র্য, শোষণমুক্ত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ রূপায়নে কাজ করে যাচ্ছে। এ কর্মস-চি বাস@বায়ন সরকারের একার দায়িত্ব নয়। দায়িত্ব সরকারের প্রতিটি অঙ্গের, সাংবিধানিক পদে নিয়োজিত প্রত্যেক ব্যক্তির, প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত প্রতিটি কর্মীর এবং সচেতন জনগণের। সরকার প্রশাসনের প্রতিটি স@রে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর। এজন্য দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস'ান নিয়েছে। আমাদের সম্মিলিত দায়িত্ব হবে এ কর্মস-চিকে সফল করা। আমি আজ মহা হিসাব-নিরীক্ষককে অনুরোধ জানাবো প্রজাতন্ত্রের প্রতিটি টাকার ব্যবহার যথাযথভাবে হচ্ছে কিনা তা নিশ্চিত করার। রাজস্ব ব্যয়সহ উন্নয়ন প্রকল্পের ব্যয়ের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে আপনি যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। মনে রাখতে হবে প্রজাতন্ত্রের অর্থের মালিক এদেশের আপামর জনগণ। তাই জনগণের অর্থের হিসাব তাদের কাছেই দিতে হবে। তারা যাতে বঞ্চিত না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে। যে সব ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নামে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যাবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস'া নিতে হবে। তা হলেই সরকারি হিসাবের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। এর পাশাপাশি অডিট বিভাগে কর্তব্যরত সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ প্রজাতন্ত্রের হিসাবের নিরীক্ষাকালে নিজেদের সততা ও নিষ্ঠার পরিচয় দিয়ে সুষ্ঠুভাবে নিরীক্ষা সমঙাদন করবেন বলে আমার বিশ্বাস। দেশপ্রেমের মহান চেতনাকে ধারণ করে প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত প্রতিটি ব্যক্তি সরকারি অর্থ ব্যয়ে সর্বোচ্চ দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেবেন-এ আমার প্রত্যাশা।

অনুষ্ঠানে প্রবেশের পথেই আমি এ কার্যালয়ের ‘মিডিয়া সেলের’ উদ্বোধন করেছি। আমি আশা করি এ ‘মিডিয়া সেল’ ব্যবহার করে সর্বসাধারণ উপকৃত হবেন। আমি এ মিডিয়া সেলের সফলতা কামনা করি।

পরিশেষে আমি সবাইকে আবারো ধন্যবাদ জানিয়ে আমার বক্তব্য শেষ করছি। মহান আল-াহ আমাদের সহায় হোন।

খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।

 

Home | Contact us | Sitemap
© Copyright 2009, Bangabhaban - Bangladesh, all rights reserved.
Financed by Support to ICT Task Force (SICT) , Planing Division. Developed by : Ethics Advanced Technology Ltd. (EATL)