Top banner
Language : Bengali | English
Quick Links
 




Venue: নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাস, বসুন্ধরা, ঢাকা
Date: 03-01-2012


বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির সম্মানিত উপাচার্য ড. হাফিজ জি. এ সিদ্দিকী, মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী জনাব নুরুল ইসলাম নাহিদ, এমপি; সম্মানিত সমাবর্তন বক্তা ড. মাথানা শান্তিওয়াত; প্রিয় গ্রাজুয়েটবৃন্দ এবং উপস্থিত সুধীমণ্ডলী আসসালামু আলাইকুম। আজকের এই মহতী অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাইকে ইংরেজি নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির অনুষ্ঠানে পঞ্চদশ সমাবর্তন যোগদান করতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। সমাবর্তন হলো ছাত্র-ছাত্রীদের কঠোর সাধনার প্রতিফলন। এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তারা আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি লাভ করে। আজ যারা ডিগ্রী অর্জন করছে, আমি তাদের ও তাদের অভিভাবকদের আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। প্রিয় সুধী, আপনারা নিশ্চয়ই জানেন, উচ্চ শিক্ষা অর্জন, মেধা ও মুক্তবুদ্ধি চর্চার পীঠস্থান হলো বিশ্ববিদ্যালয়। লেখাপড়ার পাশাপাশি সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটে বিশ্ববিদ্যালয়ে। আমার দৃঢ় বিশ্বাস, দেশের উন্নয়ন ও সমাজ বিনির্মাণে দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয় আধুনিক ও যুগোপযোগী শিক্ষা বিস্তারে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। সুধীমণ্ডলী, আপনারা এও জানেন, শিক্ষা হলো একটি চলমান প্রক্রিয়া। দেশের আর্থ-সামাজিক, ভৌগোলিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক অবস্থাসহ পারিপার্শ্বিক অবস্থার উপর শিক্ষার প্রবহমান ধারা নির্ভর করে। অতীতের সাথে বর্তমান এবং বর্তমানের সাথে ভবিষ্যতের সেতুবন্ধ রচনা করে শিক্ষা। শিক্ষার গতিপথ তাই নিরবচ্ছিন্ন এবং অনন্ত। বিশ্বায়নের চ্যালেঞ্জ আজ আমাদের দোরগোড়ায়। এ চ্যালেঞ্জ থেকে পিছিয়ে পড়ার অবকাশ নেই। বিশ্বায়নের এই যুগে, আধুনিক ও বিজ্ঞানভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থার কোন বিকল্প নেই। যুগের চাহিদার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ শিক্ষাদান কার্যক্রম গ্রহণ করার জন্য আমি সরকারি বেসরকারি সকল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। এছাড়া আমাদের ইতিহাস, সভ্যতা, সংস্কৃতি, মুক্তিযুদ্ধকে সঠিকভাবে জাতির কাছে উপস্থাপন করাও সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব। মুনাফা অর্জন নয়, দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশ ও জাতির কল্যাণে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে আমি দেশের সর্বোচ্চ শিক্ষাঙ্গনগুলোকে আহ্বান জানাই। দেশের গরীব মেধাবী শিক্ষার্থীদের উচ্চমান সম্পন্ন শিক্ষা গ্রহণ সহজ করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে বৃত্তিসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা বাড়াতে হবে। শুধু বিত্তবান ঘরের সন্তান নয় মধ্যবিত্ত, নিম্ন মধ্যবিত্ত ও দরিদ্র ঘরের সন্তানরাও যেন মানসম্মত বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পায় সে বিষয়টি সুবিবেচনার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি। সুধীবৃন্দ, আপনারা নিশ্চই জানেন যে কোন দেশের উন্নয়ন ও সাফল্য অর্জন করতে একটি সূদুরপ্রসারী পরিকল্পনা প্রয়োজন হয়। সেই সত্য অনুধাবন করেই ‘রূপকল্প-২০২১’ ঘোষণা করা হয়েছে। এ কর্মসূচির লক্ষ্য হলো ক্ষুধা, দারিদ্র ও নিরক্ষরমুক্ত একটি তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়া। আর তেমন বাংলাদেশ গড়তে প্রয়োজন আজকের সমাবর্তনে ডিগ্রীপ্রাপ্ত শিক্ষিত সৈনিকদের। তারাই পারবে বাংলাদেশের পরতে পরতে জ্ঞান ও শিক্ষার আলো প্রজ্বলন করতে। প্রিয় গ্রাজুয়েটবৃন্দ, তোমাদের সামনে আজ নতুন সময় ও অবারিত প্রান্তর। এ সময়কে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে হবে। তোমাদের এই অর্জনে পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের অনেক অবদান রয়েছে। এখন সময় এসেছে তোমাদের কিছু করে দেখাবার। তোমাদের কাছে জাতির প্রত্যাশাও অনেক। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি তোমরা জাতির চাহিদা পূরণে সর্বদা সচেষ্ট থাকবে। অন্তরে দেশপ্রেম ও সততা নিয়ে সত্য ও ন্যায়ের পথে চলবে। কর্মজীবনে দেশ-বিদেশ যেখানেই থাকোনা কেন-এদেশের খেটে খাওয়া মানুষের কথা কখনো ভুলবেনা। তাদের কল্যাণে অবদান রাখার চেষ্টা করবে। আমি তোমাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যত কামনা করি। পরিশেষে, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের দু’টি চরণ দিয়ে আমার বক্তব্য শেষ করছি। অগ্র-পথিক হে সেনাদল র্জো কদম্ চল্ রে চল!! সবাইকে আবারও ধন্যবাদ। মহান আল্লাহ আমাদের সহায় হউন। খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হউক। নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির ১৫তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলরের ভাষণ স্থানঃ নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাস, বসুন্ধরা, ঢাকা তারিখ ঃ ২০ পৌষ ১৪১৮ ০৩ জানুয়ারি ২০১২
Home | Contact us | Sitemap
© Copyright 2009, Bangabhaban - Bangladesh, all rights reserved.
Financed by Support to ICT Task Force (SICT) , Planing Division. Developed by : Ethics Advanced Technology Ltd. (EATL)